অর্জন ব্যতীত কখনোই হাল ছাড়বেন না

আপনি একটি অভ্যাস বদলাতে চাচ্ছেন, কিন্তু বদলাতে পারছেন না, এমন কখনো হয়েছে? হয়তো হয়েছে। বহু মানুষের জীবনেই এই ধরণের ঘটনা ঘটে থাকে।

অনেকেই খারাপ কোন অভ্যাসে নিজেকে জড়িয়ে ফেলে। তারপর সেখান থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করে, কিন্তু ব্যর্থ হয়। বারবার চেষ্টা করেও অনেকে সফল হতে পারে না। পরবর্তী সময়ে তারা হতাশ হয়ে যায়।

আমি আপনাদেরকে বলতে চাই, কখনোই হতাশ হয়ে হাল ছেড়ে দেবেন না। চেষ্টা অব্যাহত রাখুন। আপনার অদম্য চেষ্টা একসময় নিশ্চয়ই আপনাকে সাহায্য করবে নিজেকে পরিবর্তন করতে।

এমনকি পরিবেশও আপনাকে সাহায্য করবে নিজেকে পরিবর্তন করার জন্য। কারণ, আপনি যা চান, অদম্য চেষ্টার ফলে মহাবিশ্ব তা আপনাকে দেয়ার জন্য তৈরি হয়ে যায়। তাই ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই।

এ ব্যাপারে ওয়েন ডায়ারের ঘটনা আপনাদের সাথে শেয়ার করা যেতে পারে। ওয়েন ডায়ার একসময় এ্যালকোহলিক ছিলেন। তিনি নিয়মিত মদ্যপান করতেন। বলা চলে, একরকম আসক্ত হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

তবে পরবর্তীতে নিজের প্রচন্ড চেষ্টার ফলে তিনি এখান থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হন। এসব নিয়ে তিনি নিজেই কিছু কথা মানুষের সাথে শেয়ার করেছিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন-

“অনেক বছর আগের কথা। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম আমি আর কখনোই এ্যালকোহল পান করবো না। আমি নিজের কাজে সফল হবার জন্য ভেতর থেকে যে তাড়না আসে সেটা উপলব্ধি করতে চাইছিলাম। বেশকিছু শিক্ষক আমাকে তখন বলেছিলেন, আমি যে কাজটি করতে চলেছি সেটি করার জন্য পূর্বশর্ত হচ্ছে আমার নিজের মাঝে পরিপূর্ণ দৃঢ়তা থাকা। জীবন পটের নাটকীয় পরিবর্তনের ঐ সময়ে একটা অদৃশ্য ক্ষমতা আমাকে সাহায্য করেছিলো এমনটাই মনে হয়েছিলো আমার। প্রতি সন্ধ্যায় মদ পান করার পুরোনো নেশা থেকে আমি বেরিয়ে আসার তাড়না অনুভব করতাম। একবার প্রচণ্ড নেশায় ছয় প্যাক কেনার জন্য বাইরে গিয়ে নিজের সাথে টাকা নিতে ভুলে গিয়েছিলাম। অথচ আমি কখনোই নিজের সাথে ক্যাশ টাকা নিতে ভুলতাম না!

ফলশ্রুতিতে কয়েক মিনিটের মধ্যেই আমাকে বাড়ি ফিরে আসতে হলো। আমি তখন বিয়ারের বোতল কেনার চেয়ে জোর করে বাড়িতে বসে থাকাকেই জরুরী মনে করলাম। আমি দেখলাম প্রথম সপ্তাহ কাটার পর নিয়মিতই আমি মদ্যপান এড়িয়ে যেতে সক্ষম হলাম। আসলে মদ পানের বিষয়টিকে ধরে নিতে পারেন প্রলোভন হিসেবে। মদ পান করার সময় কোনো একটা ফোন কল আমাকে এটি থেকে বিরত রাখতে পারে, পারিবারিক ঝগড়া আপনাকে বিরত রাখতে পারে নিয়মিত এসব পদস্খলন থেকে। আজকে দুই দশক পরে আমি এসব বিষয় বুঝতে পারছি। আমরা পরিবেশের দ্বারা অনেকটাই নিয়ন্ত্রিত হই।”

এই কথাগুলো নিশ্চয়ই আপনাদেরকে অনুপ্রেরণা দেয়ার কথা। নিজের ইচ্ছেশক্তি এবং পরিবেশের সম্মিলিত প্রভাব যে আপনাকে সকল ধরণের লক্ষ্য অর্জনে সাহায্য করতে পারে, ওপরের ঘটনা তারই প্রমাণ। আশা করি এখান থেকে শিক্ষা নিয়ে আপনারা নিজের জীবন বদলে নিতে পারবেন, অর্জন করতে পারবেন যাপিত জীবনের যেকোন লক্ষ্য।

 

ত্বাইরান আবির

লেখক, অনুবাদক, কনটেন্ট রাইটার


Posted

in

by

Tags:

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *