দুশ্চিন্তা করবেন না!

এমন একটা দিন কল্পনা করুন তো- আপনি ঘুম থেকে উঠেছেন এবং দুশ্চিন্তা করার মত কিছুই নেই। আপনার কেমন অনুভূত হবে? নিশ্চয়ই শান্তি অনুভূত হবে। মনের মধ্যে ঘুরপাক খাবার মত কোন চিন্তা থাকবে না। কোন দুশ্চিন্তাই আপনার মনের জগতে হতাশার ছাপ ফেলবে না। আবার ভাবুন এমন একটা দিনের কথা- আপনি ঘুম থেকে উঠলেন কিন্তু মানুষ ও সরকারের আচরণ নিয়ন্ত্রণ করার মত কিছুই করতে হলো না আপনাকে। আরো ভাবুন- আপনাকে দেশে সদ্য ঘটা ভয়ঙ্কর কোন গুজবেও বিশ্বাস করতে হলো না। এমন দিন কি পাওয়া সম্ভব? প্রশ্ন জাগতে পারে আপনার। আমি বলবো- অবশ্যই পাওয়া সম্ভব, যদি আপনি পাওয়ার চেষ্টা করেন। এ ব্যাপারে বায়রন কেটির একটি কথা আমার বেশ ভালো লেগেছে। তিনি বলেছেন-

“পৃথিবীতে আমি তিনটি ব্যবসাই খুঁজে পেয়েছি- নিজের, পরের এবং ঈশ্বরের। আপনি কোন ব্যবসায় জড়িত আছেন?”

আপনি অবশ্যই নিজের মনের ওপর ন্যস্ত থাকতে পারলেই বেশি স্বস্তি পান। জীবনটা আসলে খুব সহজ যদি আপনি একে সহজভাবে নেন, আর আপনার ভাবনাগুলোকে জটিল না করেন। যখন আপনি আপনার ‘নেতিবাচক চিন্তাগুলো’ বিশ্বাস করবেন, আপনি নিশ্চিত ভোগান্তিতে পড়বেন। আজকে আপনি কতগুলো লোকের কতগুলো ঘটনা নিয়ন্ত্রণ করেছেন বলতে পারেন? কত কত অনর্থক বিষয়ে মাথা খাটিয়েছেন হিসেব করেছেন? কখনো কখনো আপনি এমন বিষয় নিয়েও দুশ্চিন্তা করেন, যেসব আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম নন। এমনকি সেসব ব্যাপার সমাধান করার ক্ষমতাও আপনার নেই। আমি বলবো- এসব বাদ দিয়ে নিজের মনের ওপর ন্যস্ত হোন। পরিস্কার (চিন্তামুক্ত) মন নিয়ে জীবনীশক্তি উপভোগ করুন।

দুশ্চিন্তা আপনি ‘কোনকিছু সহ্য করতে পারেন না’ বলে করেন না, আপনি দুশ্চিন্তা করেন কারণ ‘আপনি দুশ্চিন্তা করতেই শিখেছেন’। দুশ্চিন্তা মনের এক সৃষ্টিশীল প্রক্রিয়া। মনকে আপনি যেভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করেন সেসব প্রশ্নই দুশ্চিন্তা তৈরি করে। যদি নিজের মনকে আপনি যেকোনো ব্যাপারে ‘কী হবে’ জাতীয় প্রশ্ন করেন তাহলেই আপনি দুশ্চিন্তায় পড়বেন নিশ্চিতভাবে। যদি আপনি অনবরত নিজের মনকে প্রশ্ন করতে থাকেন, ‘কী হবে যদি আমার চাকরি চলে যায়? কি হবে যদি গাড়ি এক্সিডেন্ট হয়? কী হবে যদি কোন ক্রিমিনাল আমাকে আক্রমণ করে?’ এইসব ‘কী হবে’ জাতীয় প্রশ্নগুলো আমাদের মনের ভেতর একটা ভয়ানক প্রতিচ্ছবি সৃষ্টি করে এবং সেসব নড়চড় হয়ে বিভিন্ন দৃশ্য তৈরি হয় যা আমাদের দুশ্চিন্তার অবস্থায় পরিণত হয়। আপনার ভাবনাগুলোই আপনার মানসিক অবস্থার পদক্ষেপ। তাই ইতিবাচক কিছু ভেবে নিজের ভেতর শান্তি অনুভব করতে থাকুন।

 

© ত্বাইরান আবির


Posted

in

by

Tags:

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *